শিরোনাম

নাসিরনগরে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের সামনে

উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ॥ সরকারি কর্মকান্ডে স্থবিরতা!

নাসিরনগর প্রতিনিধি | সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০২১ | পড়া হয়েছে 145 বার

উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ॥ সরকারি কর্মকান্ডে স্থবিরতা!

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে প্রশাসনের কোন ধরনের অনুমতি না নিয়ে সোমবার ২৭শে ডিসেম্বর, ২০২১ সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বরে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ।

সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দ ফজলে ইয়াজ আল হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে সম্মানিত অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য বি.এম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম এমপি।

প্রধান বক্তা ছিলেন আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু। সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট লোকমান হোসেন।

সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ম আহবায়ক নির্মল চৌধুরীর সঞ্চালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি সালেহ মোহাম্মদ টুটুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এ.কে.এম আজিম, সাংগঠনিক সম্পাদক নাফিউল করিম নাফা, অর্থ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম আবুল, নাসিরনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি রাফিউদ্দিন আহমেদ, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বাহার উদ্দিন চৌধুরী, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক এম সাইদুজ্জামান আরিফ।
সম্মেলন শেষে দ্বিতীয় অধিবেশনে সকলের সম্মতিক্রমে নির্মল চৌধুরীকে সভাপতি ও শাখাওয়াত হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের কমিটি গঠন করা হয়

এদিকে উপজেলা চত্বরে বিশাল প্যান্ডেল করে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সম্মেলনের কারনে উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কার্যক্রমে ব্যাঘাতের সৃষ্টি হয়। সেবা গ্রহিতারা অনেকেই বাধ্য হয়ে ফিরে যাচ্ছেন। এনিয়ে প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিরা অসাহয়ত্ব প্রকাশ করেছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নাসিরনগর উপজেলা পরিষদে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের (ইউএনও) কার্যালয়, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিস, হিসাব রক্ষণ অফিস, কৃষি অফিস, খাদ্য অফিস, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস, উপজেলা শিক্ষা অফিসসহ সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান রয়েছে। কোন ধরনের পূর্ব অনুমোদন ছাড়াই সরকারি গুরুত্বপূর্ন অফিসের সামনে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সম্মেলনের আয়োজন করে। এজন্য সরকারি অফিসের সামনে বিশাল আকার প্যান্ডেল ও মঞ্চ তৈরি করা হয়। এতে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনের সামনের পুরো মাঠ আয়োজনকারিদের দখলে চলে যায়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) হালিমা খাতুনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সম্মেলন করার বিষয়টি তাঁকে মৌখিকভাবে জানানো হয়। সমাবেশের কারণে কাজে সমস্যা হচ্ছে বলে তিনি স্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খাঁন জানান, অফিস খোলার দিনে সরকারি অফিসের কার্যক্রম বাঁধাগ্রস্ত করে পূর্বে অনুমোদন ছাড়া কোন রাজনৈতিক দলের সমাবেশ করার সুযোগ নেই। তবে সেখানে কিভাবে এই রাজনৈতিক দলের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে এটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ভাল বলতে পারবেন। এ বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

অবশ্য জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোঃ লোকমান হোসেন এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, বিকল্প কোনো ব্যবস্থা না থাকায় বাধ্য হয়ে সরকারি অফিসের সামনে এই সম্মেলনের আয়োজন করতে হয়।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১