শিরোনাম

মাত্র ৫০ হাজার টাকার জন্য

চিকিৎসা হচ্ছেনা সড়ক দুর্ঘটনায় আহত শিশু রাহুলের

স্টাফ রিপোর্টার | শুক্রবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ | পড়া হয়েছে 192 বার

চিকিৎসা হচ্ছেনা সড়ক দুর্ঘটনায় আহত শিশু রাহুলের

মাত্র ৫০ হাজার টাকার জন্য সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৭ বছরের শিশু রাহুলের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা করাতে পারছেনা তার পরিবার। বাম পায়ের হাঁটুর কাছে হাড় ভেঙ্গে যাওয়া রাহুলের কবিরাজি চিকিৎসা চলছে বাড়িতেই। তবে তার পরিস্থিতি অবনতির দিকে।

রাহুল ঋষি-(৭) এর বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া উপজেলার উত্তর ইউনিয়নের কৌড়াতলী গ্রামের ঋষিপাড়ায়। তার বাবা দুর্জধন ঋষি পেশায় মুচি, মা উষা রানী ঋষি অন্যের বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করেন। দুই বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে রাহুল সবার ছোট।

রাহুলের পরিবার ও স্থানীয়রা জানান, গত ১ নভেম্বর সকালে রিকসার একটি টায়ার নিয়ে খেলতে খেলতে রাহুলসহ আরো কয়েকজন শিশু চলে যায় আখাউড়া-চান্দুরা সড়কে। এ সময় অটোরিকশা চাপায় রাহুলের বাম পা ভেঙ্গে যায়। চিকিৎসকরা তার পরিবারকে পরামর্শ দেন অপারেশন করার। এতে লাগবে ৫০ হাজার টাকা, কিন্তু টাকার অভাবে অস্ত্রোপচার করানো যাচ্ছে না।

রাহুলের চাচাতো ভাই বিজয় ঋষি বলেন, আহতবস্থায় রাহুলকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নেয়ার পর কয়েকজন মিলে এক হাজার টাকা দিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা শুরু করি। রাহুলের আপন বড় বোন কানের দুল বিক্রি করে ১০ হাজার টাকা দিলে প্লাস্টার করানো হয়। তবে চিকিৎসকরা বলেছেন অপারেশ ছাড়া তার পা ভালো হবে না।

গত ২৫ নভেম্বর ও ১৯ ডিসেম্বর রাহুলের পায়ের এক্সরে করে চিকিৎসকরা দেখতে পান ভাঙ্গা হাড় জোড়া লাগেনি, আগের মতোই আছে। চিকিৎসরা বলে দিয়েছেন দ্রুত অপারেশ না করা হয়ে পায়ে পঁচন ধরাসহ নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।

রাহুলের ভগ্নিপতি রাকেশ ঋষি বলেন, চিকিৎসার জন্য সাধ্য অনুযায়ি চেষ্টা করছি। কিন্তু অপারেশন করার মতো টাকা জোগাড় করা তাদের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না।

মা উষা রানী জানান, রাহুল মন্দির ভিত্তিক স্কুলে পড়াশুনা করতো। ওইদিন সকালের নাস্তা খেয়ে বন্ধুদের ডাকে বের হয়ে যায়। কিছুক্ষণ পরই খবর পাই অটোরিকশা চাপায় সে রাস্তায় পড়ে আছে। তিনি বলেন, টাকা যোগাড় করতে না পারায় আমার ছেলের অপারেশন করাতে পারছিনা। তিনি তার ছেলের চিকিৎসায় সমাজের বিত্তবানদের সহযোগীতা কামনা করেন।

রাহুলের বাবা দুর্জধন ঋষি বলেন, কিভাবে ছেলের অপারেশন করাব বুঝতাছিনা। তিন মাস আগে ত্রিশ হাজার টাকা ঋন নিয়ে মেয়ে বিয়ে দিছি। প্রতি সপ্তাহে আটশ টাকা করে ঋনের কিস্তি দেই। তিনি তার ছেলের চিকিৎসার জন্য সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান।

আখাউড়া উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য রাজু ঋষি বলেন, পরিবারটি একেবারে দরিদ্র। অপারেশন করতে না পেরে কবিরাজি চিকিৎসা চালানো হচ্ছে রাহুলের। কিন্তু ভেঙ্গে যাওয়া হাড় জোড়া লাগার কোনো লক্ষণ নেই। বিত্তবানদের সহযোগিতা ছাড়া রাহুলের চিকিৎসা সম্ভব নয়।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১